টিপস

ডায়রিয়া জনিত সতর্ক বার্তাঃ

 

 ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীকে স্বাভাবিক খাবার দিন,

     সেই সাথে প্রচুর পরিমাণে

     – খাবার স্যালাইন

     -ডাবের পানি

     -ভাতের মাড়

     -তরল খাবার

     -নিরাপদ পানি

ডায়রিয়া সারাতে একমুঠো  গুড় আর এক চিমটি লবণ দিয়ে যে স্যালাইন বানিয়ে খেতে হয়  সে কথা আমরা ভুলে গেছি। আমরা এখন স্যালাইন কিনে খাই।  আমরা জানি অ্যান্টিমটিলিটি ওষুধ খেলে অন্ত্রের চলন কমে যায়, ফলে বারবার টয়লেটে যাওয়ার প্রবণতা কমে। কিন্তু এটি ডায়রিয়া সারাতে সাহায্য করে -এমন কোনো প্রমাণ নেই।

বাজারে ডায়রিয়া বন্ধ করার কিছু ওষুধ প্রচলিত আছে। যেমন লপেরামাইড, কোডিন-জাতীয় ওষুধ। অনেকে আবার সিপ্রোফ্লক্সাসিন বা অ্যাজিথ্রোমাইসিন ধরনের অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে ফেলেন। ফ্লাজিল বা মেট্রোনিডাজলও খুব প্রচলিত। কিন্তু মনে রাখবেন, প্রয়োজন ছাড়া এগুলো খাওয়া ঠিক নয়।

ডায়রিয়া থেকে মৃত্যু ঠেকাতে হাতের কাছে কার্যকরী তেমন কোনো ওষুধ  পূর্বে ছিল না। অথচ সেই শূন্যতা পূরণ করে কোটি মানুষের প্রাণ  বাঁচিয়েছে সামান্য এক চিমটি লবণ ও এক মুঠো গুড়ের মিশ্রণ! ডায়রিয়া বা উদরাময় হলে দ্রুত পায়খানার সাথে পানি বেরিয়ে শরীরে পানিশূন্যতার সৃষ্টি হয় এবং আক্রান্ত ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করে। এই মৃত্যুর আশঙ্কা থেকে বাঁচাবে খাবার স্যালাইন।

ঘরেই তৈরি করতে পারেন খাবার স্যালাইন।

খাবার স্যালাইন কীভাবে বানাবেন?

আধা লিটার পানি ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। পরে এই পানিতে এক চিমটি লবণ ও এক মুঠো গুড়বমিশিয়ে ছেঁকে নিন। তৈরি হয়ে গেল খাবার স্যালাইন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *